বিনামুল্যের অ্যাপ দিয়ে লোকেশন ট্র্যাকিং কতটুকু নির্ভরযোগ্য?

Arib&Sonchoy

26 May, 2021 | 9 : 37 pm

 

বিনামুল্যের অ্যাপ দিয়ে লোকেশন ট্র্যাকিং কতটুকু নির্ভরযোগ্য?

শাহানার আজ তার মেয়েকে স্কুলে ভর্তি করিয়ে দেওয়ার কথা। কিন্তু স্কুলটি ঠিক কোথাও তা উনার জানা নেই।তাই মুঠোফোনের গুগল ম্যাপ ব্যবহার করে তিনি সহজেই ঠিকানা জেনে নিলেন।ফেরার পথে তিনি ঠিক করলেন আজ দুপুরে মেয়েকে নিয়ে বাইরে খাবেন। তাই আশেপাশে একটি ভালো রেস্তোরাঁ খোঁজায় ব্যস্ত হয়ে পড়লেন।এবারও শরণাপন্ন হলেন গুগল ম্যাপের।ম্যাপের সাহায্য মুহূর্তেই তিনি একটি পছন্দমতো রেস্তোরাঁ পেয়ে গেলেন।

বর্তমান যুগ প্রযুক্তির যুগ এ আর নতুন করে বলবার কিছু নেই। জীবন দায়মুক্ত ও সহজ করার যে দায়িত্ব প্রযুক্তি গ্রহণ করেছে তারই এক ফসল হলো Location tracking system বা অবস্থা নির্ণায়ক ব্যবস্থা।উপরোক্ত উদাহরণের মতো আমরাও প্রাত্যহিক জীবনের নানা ক্ষেত্রে ব্যবহার করছি এই ব্যবস্থাটি।তবে আমাদের মনে কখনো কী প্রশ্ন এসেছে কেন বিনামূল্যে এই ব্যবস্থা?কীভাবে নির্ণয় করছে আমাদের সঠিক অবস্থান?এর কী কোনো অসুবিধাই নেই? কীভাবে কাজ করে এই লোকেশন সিস্টেম?

উদাহরণ হিসেবে বলা যায় যদি কেউ লাবিবা মায়ের তথ্য হ্যাক করে ফেলতে পারে তবে সে সহজেই লাবিবা ও তার মা কখন ঘরের বাইরে থাকছে তা ধারণা কারতে পারবে।ফলে সে তাদের উপর চুরি,ডাকাতি অপহরণ বা যেকোনো ভয়ংকর অপরাধ করতে সক্ষম হবে।অপরদিকে লাবিবার মায়ের ব্যক্তিগত তথ্যে নিয়েও তাকে ঝামেলা পোহাতে হতে পারে। সুযোগ-সুবিধা ও নিরাপত্তা -এদুটো কারণের জন্যই মূলত আমরা লোকেশন সিস্টেম ব্যবহার করি;করছি।কোনো এক অচেনা জায়গায় হঠাৎ উপস্থিত হওয়া কিংবা বাড়িতে ফিরতে ফিরতে রাত হয়ে যাওয়া-ইত্যাদি নানাবিধ পরিস্থিতিতে লোকেশন ট্র্যাকিং ব্যবস্থা আমাদের একমাত্র সহায়ক।আজকাল অনেক পিতা-মাতাও তাদের সন্তানের উপর নজর রাখার জন্য এ ব্যবস্থার আশ্রয়গ্রহীতা।প্রযুক্তি-নির্ভর এই যুগে এই ব্যবস্থাটির গুরুত্ব অনস্বীকার্য। তবে যতটা নিশ্চিন্ত মনে আমরা এটি ব্যবহার করছি ততটা সুনিশ্চিত না হয়ে লোকেশন ট্র্যাকিং সিস্টেম ব্যবহারে আমাদের আরো সাবধান ও সচেতন হওয়া আবশ্যক।

লোকেশন ট্র্যাকিং কি?

লোকেশন ট্র্যাকিং এ্যাপগুলো জিপিএস সিস্টেম ব্যবহার করে থাকে যা স্যাটেলাইট,ফোন টাওয়ার বা পাবলিক ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের মধ্যে ping করা থাকে।এই সিগন্যাল চার্ট আমরা কোথায় আছি,আমাদের চারপাশের পথ, নিকটস্থ কোনো বিশেষ কোনো ব্যবস্থা/সার্ভিস(যেমন আশপাশে কোনো ভালো রেস্টুরেন্ট বা হাসপাতাল) আছে নাকি এ বিষয়গুলোর নির্দিষ্ট  করে দেয়।

লোকেশন ব্যবস্থা কি বিনামূল্যেই?

উত্তর হল না।আপাতদৃষ্টিতে সুবিধা ভোগের সময় এক পয়সা খরচ সুবিধাটি বিনামূল্যে নয়।যখন আমরা আমাদের ফোনে লোকেশন ট্র্যাকিং সিস্টেমটি ব্যবহার করছি তখন সেটি বদলে আমাদের ফোনের অধিগ্রহণ ক্ষমতার অধিকারী হয়ে উঠছে অর্থাৎ তখন এটি আমাদের মুঠোফোন /ডিভাইসের তথ্য হস্তক্ষেপ করবার অনুমতি পেয়ে যাচ্ছে। এন্ড্রয়েড অ্যাপ তার ৯০শতাংশ তথ্য গুগলের সঙ্গে শেয়ার করে পাশাপাশি গুগলকে বহুল তথ্য নেয়ার সুবিধা করে দেয়।এমনকি যদি আমরা সেটিংস থেকে আমাদের লোকেশন অফ করে দিই তবুও সেগুলো আমাদের অবস্থান নির্ণয়ে কার্যকর(যদি কেউ তার ফোনের ট্র্যাকিং ব্যবস্থা সম্পূর্ণরুপে বন্ধ করতে চায় তাহলে তাকে সেটিংস থেকে লোকেশন ব্যবস্থাটি বন্ধ করতে হবে পাশাপাশি যেসব অ্যাপ লোকেশন সিস্টেম অধিগ্রহণের অনুমতি আছে সেগুলোও বন্ধ করতে হবে)।

আরও পড়ুনঃআলাপ -বিটিসিএল আইপি কলিং অ্যাপ

আমাদের তথ্যগুলো নিয়ে গুগল নিয়ে গুগল কি করে?

আমাদের তথ্যগুলো নিয়ে গুগল সেগুলো অন্য কোম্পানিদের কাছে বিক্রি করে দেয়।পাশাপাশি আমাদের তথ্য ব্যবহার করে আমাদের চলন বা পছন্দানুসারে বিজ্ঞাপন ব্যবস্থাটি সাজায় (ফোনে কিছু ব্যবহার করবার সময় যখন আমরা বিজ্ঞাপনগুলো দেখি)। পাশাপাশি ব্যবসায়িক ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা হয়।যেমন যদি একটি ব্যক্তি তার পছন্দের বিষয়ের দোকানের কাছেই বসবাস করে তখন অ্যাপটি তাকে শারীরিক উপস্থিতিই পরামর্শ করবে।অপরদিকে যদি ব্যক্তিটির বসবাস সেখান হতে দূরে হয় তখন অ্যাপটি কীভাবে অনলাইনে ব্যবস্থাটি গ্রহণ করতে পারবে সেটি পরামর্শ দিবে। এ তথ্যগুলোর বদলে গুগল আয় করে নেয় বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার।অ্যাপলও একইভাবে কাজ করে থাকে।

অসুবিধা তাহলে কোথায়?

লোকেশন ব্যবস্থার বদলে আমাদের তথ্য-ব্যবসা চললেও গ্রাহকগণ এতে খুব একটা আপত্তি প্রকাশ করেন না কারণ বাহ্যিক দিক থেকে ভোক্তা শুধু উপকারই পেয়ে যাচ্ছে বলে মনে হয়।তবে কিছুসংখ্যক গ্রাহক এর বিপরীতে(একটি গবেষণায় দেখা গেছে ১২ শতাংশ)। কারণ হিসেবে তারা দাঁড় করিয়েছেন গুগল তাদের সুবিধা দেওয়ার পাশাপাশি তাদের একান্ত ব্যক্তিগত তথ্যেও চাইলে অনুপ্রবেশ করতে পারে যা অনেক সময় মঙ্গলজনক নয়।বর্তমানে প্রায় ২.৫বিলিয়ন মানুষ এই লোকেশন সিস্টেমের ব্যবহারকারী।এত মানুষের ব্যক্তিগত তথ্যের রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবস্থা গুগলের অন্য ক্ষেত্রের ব্যবস্থার মতোই। বিশেষ কোনো নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেই।ফলে আমাদের তথ্যেগুলো হ্যাক হওয়ার আশঙ্কা একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যায়না।আবার কোনোভাবে এ তথ্য যদি কোনো অসাধু ব্যক্তি/চক্রের হাতে পড়ে তখন আমরা অপূরনীয় ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারি।

 আপনি যে লিংকে ক্লিক করছেন তা নিরাপদ তো?

আমাদের সকল সাইটের লিংকঃ


115 Views


5 1 vote
Article Rating
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
Show Buttons
Hide Buttons
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x